Gynaecology & Obstetrics, প্রতিকার, লক্ষণ, শারীরিক সমস্যা

মেনোপজ কি? এ সময় পরিবারের ভুমিকা কি হওয়া উচিত?

বয়স পয়তাল্লিশ থেকে পঞ্চান্নর কোঠায় পৌছানোর সাথে সাথেই অধিকাংশ মহিলাই চিন্তিত হয়ে পড়েন। ভাবেন ঋতুচক্র বন্ধের ফলে হয়তোবা তাদের জীবনের সব কিছু শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু আপনি কি জানেন মেনোপজের সময়ও আপনি অন্যান্য মহিলাদের মত সুস্থ স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারেন? শুধুমাত্র দরকার একটু সচেতনতার।

মেনোপজ আসলে কি?

মহিলাদের একটা নির্দিষ্ট সময় পরে ঋতুচক্র বন্ধ হয়ে যায়। ঋতুচক্র বন্ধের পরবর্তী সময়কে মেনোপজ বলে। এই সময়ে মহিলাদেরকে নানাবিধ শারীরিক সমস্যার সম্মুক্ষিণ হতে হয়।

মেনোপজের কারণে শরীরে বিভিন্ন ধরনের পরিবর্তণঃ এই সময়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা কমে যায়। কেউ কেউ মোটা হয়ে যান আবার অনেকে চিকন হয়ে যান। এই সমস্ত কারণে মহিলারা মানসিক দিক থেকে বিষন্ন হয়ে পড়েন।

হরমোনের পরিবর্তণের প্রভাবঃ এই ধরনের পরিবর্তণের কারণে হঠাৎ রেগে যাওয়া বা মেজাজ খিটখিটে হওয়াই স্বাভাবিক। এমন দিনগুলোতে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সার্বিক সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজন।

মনকে প্রফুল্ল রাখতে কি করবেন?

অলসভাবে সময় কাটালে মন ভালো হওয়ার পরিবর্তে মন খারাপ হবে এটাই স্বাভাবিক। তাই এমন সময় গুলোতে মন ভালো রাখতে বিভিন্ন কাজ যেমন বই পড়া, বাগান করা, সেলাই করা ইত্যাদি কাজে নিজেকে ব্যস্ত রাখতে পারেন।

এমন সময় খাবার বিষয়ে সচেতনতাঃ মেনোপজের দিনগুলোতে খাবার বিষয়ে সচেতন হওয়া খুবই জরুরী। এমন সময়ে ক্যালসিয়ামের অভাব দেখা দেয়। তাই দুধ ও দুধ জাতীয় খবার, ডিম, শাকসবজি খেতে হবে। পাশাপাশি পরিমিত পানি এবং ফলমূল খেতে হবে।

মেনোপজের পরে বিশেষ কিছু লক্ষণ প্রকাশ পায়।

  • শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যাবে।
  • রাতের বেলায় ঘাম হবে।
  • ঘুম কম হবে।
  • বিষন্নতা ভাব দেখা দিবে।
  • হাত- পায়ের তালুতে জ্বালাপোড়া করবে।
  • যৌনি পথ শুষ্ক হয়ে যায়।
  • যৌনতায় বা মিলনের আগ্রহ হারিয়ে ফেলা।

মেনোপজ নিয়ে আতংকগ্রস্থ হবার কিছুই নেই। বরং মেনোপজ দেখা দিলে কিছু বিশেষ বিষয়ের প্রতি অধিক নজর দিতে হবে।

  • এই সময় পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। তেল বা চর্বি জাতীয় খবার এড়িয়ে চলতে হবে।
  • নিজেকে দুঃচিন্তা মুক্ত রাখতে এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে প্রতিদিন কিছুটা সময় ব্যয়াম করতে হবে।
  • অবশ্যই ধূমপান এবং সকল প্রকার নেশা জাতীয় দ্রব্য পরিহার করতে হবে।

তাই কিছুটা সচেতন থাকলে, মেনোপজ সম্পর্কে সঠিক ধারনা থাকলে এবং পরিবারের সহায়তা পেলে মেনোপজের কঠিন দিনগুলোকে আপনি খুব সহজেই মোকাবেলা করতে পারবেন।

Previous Post Next Post

You Might Also Like

Comments are closed.