skin

ব্রণ কী? ব্রণ কেন হয়, ব্রণ হলে কী করবেন

acne vulgaris   আমরা সবাই এটাকে ব্রন নামে চিনি। ব্রন আমরা সবাই চিনি। তবে সব ব্রন এক না। acne vulgaris মানে হল সবার মধ্যে যেটা দেখা যায়। অনেক কারনে এটা হতে পারে। কসমেটিকস ব্যবহার করা কারনে হতে পারে, ছোট বাচ্চাদের হতে পারে, হাত দিয়ে শরীর চুলকালেও এটা হতে পারে। কিছুকিছু আছে গ্রীষ্মকালে হয়। সব বয়সেই এটা হতে পারে।

সাধারনত কিশোর কিশোরীদের এটা বেশি হয়। ৩০/৩৫ বয়স পর্যন্ত এটা স্থায়ী হতে পারে। আমাদের শরীরে এন্ড্রোজেন নামক এক তৈল গ্রন্থি আছে। সেই এন্ড্রোজেনের প্রভাবে লোম কুপে তৈল নিঃসরণ শুরু হয়। সেই লোম কুপ দিয়ে তৈল বেরিয়ে আসে। কোন কারনে যদি তৈল বের হতে না পারে, আটকে যায় তাহলে সেখানে acne দেখা দেয়। এটা শুধু চর্মরোগ নয়, হরমোনেরও সম্পর্ক আছে এটার মধ্যে। আমাদের উচিত গুরুত্ব দিতে এটার চিকিৎসা করা ।

 

১. কারনঃ- ১. কসমেটিকস ব্যবহার করা কারনে ব্রন হতে পারে, ২. ব্রন অনেকসময় ছোট বাচ্চাদের হতে পারে, ৩. হাত দিয়ে শরীর চুলকালেও এটা হতে পারে, ৪. গ্রীষ্মকালে ব্রনের প্রকোপ বেশি দেখা দেয়।

২. লক্ষনঃ- ১. এই ব্রন মূলত শরীরের লোমওয়ালা স্থান গুলোতে বেশি দেখা দিতে পারে, ২. সাধারন ব্রনের সকল লক্ষণই থাকে এটাতে।

৩. টিপসঃ- ১. চর্ম বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসা নিতে হবে।

Previous Post Next Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *