কন্ডাক্টিভ হেয়ারিং লস (Conductive hearing loss)

শেয়ার করুন

বর্ণনা

যদি কানে শুনতে না পাওয়ার সমস্যা বা হিয়ারিং লস শব্দ তরঙ্গ কক্লিয়াতে না পৌঁছানোর কারণে হয়ে থাকে তখন তাকে কন্ডাক্টিভ হিয়ারিং লস বলে। ইয়ার ড্রাম অথবা অসিকলস (ছোট ছোট তিনটি হাড়) এ এই সমস্যা হতে পারে। কন্ডাক্টিং লস সচরাচর দেখা যায় না। শতকরা ৯০ শতাংশ হিয়ারিং লস সেন্সর নিউরাল লসের কারণে হয়ে থাকে। এ অবস্থা কক্লিয়া অথবা অডিটরী নার্ভে সমস্যার জন্য দায়ী। যখন হিয়ারিং লস অসিকলসে কোন ব্যাঘাত সৃষ্টি হওয়ার সাথে সম্পর্কিত থাকে তখন তাকে কন্ডাক্টিভ হিয়ারিং লস বলে। একে অনেক সময় ফ্ল্যাট লসও বলা হয়, যা সব ধরনের ফ্রিকুয়েন্সীর উপর বিরুপ প্রভাব ফেলে। এ রোগের ক্ষেত্রে হিয়ারিং এইড অথবা কানে শোনার বিশেষ যন্ত্র ব্যবহার করা যেতে পারে। অনেক সময় অপারেশনের মাধ্যমে এই রোগ থেকে সেরে উঠা সম্ভব। 

কারণ

যেসব কারণে এই রোগ হয়ে থাকে সেগুলো হলোঃ

  •   বহিঃকর্ণ, ইয়ার ক্যানাল অথবা মধ্যকর্ণে বিকৃতে দেখা দিলে।
  •   ঠান্ডার কারণে থেকে মধ্যকর্ণে তরল জমা হলে।
  •   কানে ইনফেকশন (যেমন- অটাইটিস মিডিয়া- মধ্যকর্ণে তরল জমা হওয়া, যার কারণে ইয়ার ড্রাম এবং অসিকলস এর স্বাভাবিক ক্রিয়ায় ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়)।
  •   অ্যালার্জি।
  •   ইউসটেসইয়ান টিউবে স্বাভাবিক নিয়মে কাজ না করলে।
  •   ইয়ারড্রামে ছিদ্র দেখা দিলে।
  •   বিনাইন টিউমার।
  •   ইম্প্যাক্টেড ইয়ারওয়াক্স।
  •   কানের ভিতর কোন বাহ্যিক বস্তু প্রবেশ করলে।
  •   অটোস্ক্লেরোসিস।


লক্ষণ

এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে চিকিৎসকেরা নিম্নলিখিত লক্ষণগুলি চিহ্নিত করে থাকেন:

ঝুঁকিপূর্ণ বিষয়

যদি আপনার কানে তরল বা পুঁজ জমা হওয়ার ঝুঁকি থাকে, সেক্ষেত্রে কন্ডাক্টিভ হিয়ারিং এ আক্রান্ত হলে আপনার ক্ষতির সম্ভাবনা আরও বৃদ্ধি পাবে। আপনি যদি প্রায়ই কানের কোন ইনফেকশন অথবা অ্যালার্জিতে আক্রান্ত হন, তাহলে আপনার ইয়ার ক্যানালে ওয়াক্স অথবা পুঁজ জমা হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যাবে। কান অপরিষ্কার রাখাও এ রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।

যারা ঝুঁকির মধ্যে আছে

লিঙ্গঃ মহিলাদের এই রোগ নির্ণয়ের সম্ভাবনা ১ গুণ কম। পুরুষদের মধ্যে এ রোগ নির্ণয়ের গড়পড়তা সম্ভাবনা রয়েছে।

জাতিঃ শ্বেতাঙ্গ ও কৃষ্ণাঙ্গদের মধ্যে এই রোগ নির্ণয়ের সম্ভাবনা ১ গুণ কম।হিস্প্যানিক এবং অন্যান্য জাতিদের মধ্যে এ রোগ নির্ণয়ের গড়পড়তা সম্ভাবনা রয়েছে। 


সাধারণ জিজ্ঞাসা


উত্তরঃ অটোস্ক্লেরোসিস হলে কানের সবচেয়ে ছোট হাড় বা স্টেপ্সের কম্পন বন্ধ হয়ে যায় এবং এটি শব্দশক্তি অভ্যন্তরীন কানে পৌঁছে দিতে ব্যর্থ হয়। এই সমস্যা প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে বেশি দেখা যায় তবে শিশুরাও আক্রান্ত হয়ে থাকে।

উত্তরঃ এ রোগে আক্রান্ত শিশুরা আশেপাশের পরিবেশের সাথে নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে চেষ্টা করে কিন্তু ব্যর্থ হয় এবং একপর্যায়ে হতাশ হয়ে পড়ে। ধীরে ধীরে তারা সবকিছু থেকে নিজেকে গুটিয়ে ফেলে। এদের প্রতি মানসিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে এবং একজন নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হতে হবে।

হেলথ টিপস্‌

এই সমস্যা প্রতিরোধের কয়টি উপায় হলোঃ

  •   উচ্চ শব্দযুক্ত স্থান এবং সাঁতার কাটার সময় ইয়ার প্লাগ ব্যবহার করতে হবে।
  •   আপনি যদি সবসময় উচ্চ শব্দযুক্ত স্থানে কাজ করেন, প্রায়ই সাঁতার কাটেন অথবা নিয়মিত কনসার্টে অংশগ্রহণ করেন সেক্ষেত্রে অবশ্যই চিকিৎসকের কাছে গিয়ে কানের টেস্ট করাতে হবে।
  •   দীর্ঘ সময় ধরে জোরালো শব্দ হচ্ছে এমন জায়গা অথবা উচ্চ শব্দ ব্যবহার করে গান শোনা এড়িয়ে চলুন।
  •   কানে ইনফেকশন দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হউন, কারণ চিকিৎসা করা না হলে এর থেকে স্থায়ীভাবে কানের ক্ষতি হতে পারে।

বিশেষজ্ঞ ডাক্তার

প্রফেসর ডা: মো: আবুল হাসনাত জোয়ার্দার

অটোল্যারিঙ্গোলজি ( নাক, কান, গলা) ( Otolaryngology)

প্রফেসর ডা: মো: মনজুরুল আলম

অটোল্যারিঙ্গোলজি ( নাক, কান, গলা) ( Otolaryngology)

প্রফেসর ডা: এম. আলমগীর চৌধুরী

অটোল্যারিঙ্গোলজি ( নাক, কান, গলা) ( Otolaryngology)

প্রফেসর ডা: প্রাণ গোপাল দত্ত

অটোল্যারিঙ্গোলজি ( নাক, কান, গলা) ( Otolaryngology)

প্রফেসর ডা: খোরশেদ মজুমদার

অটোল্যারিঙ্গোলজি ( নাক, কান, গলা) ( Otolaryngology)

প্রফেসর ডাঃ নাজমুল ইসলাম

অটোল্যারিঙ্গোলজি ( নাক, কান, গলা) ( Otolaryngology)

প্রফেসর ডা: নাসিমা আক্তার

অটোল্যারিঙ্গোলজি ( নাক, কান, গলা) ( Otolaryngology)

প্রফেসর ডা: মো: আবু হানিফ

অটোল্যারিঙ্গোলজি ( নাক, কান, গলা) ( Otolaryngology)